৩০ এর পর পুরুষের স্বাস্থ্যঝুঁকি ও তার প্রতিকার! । সচেতন হোন!  Banner Photo

Ω author: Shakhawat Hossain Akash

 93  2  1

একজন মানুষের শরীর সবসময় একরকমভাবে কাজ করতে পারে না। নির্দিষ্ট একটি বয়স থেকে একজন মানুষের শরীরের স্বাভাবিক গতিপ্রকৃতি হ্রাস পেতে থাকে। পুরুষদের ক্ষেত্রে দেখা যায় যে ৩০ বছর বয়সের পর শারীরিক নানা পরিবর্তন হয়। অনেক সময় এই বিষয়গুলো পুরুষদের নজর এড়িয়ে যায়। গবেষণায় উঠে এসেছে একজন পুরুষ যতক্ষণ তাঁর কাজ করতে পারে এবং নিজেকে কর্মক্ষম মনে করে ততদিন তারা স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে না। এমনকি মেয়েদের তুলনায় পুরুষরা চিকিৎসকের কাছে কম যায় এবং যখন যায় তখন তা গুরুতর অবস্থায় থাকে। তাই ত্রিশের বেশি বয়সের পুরুষদের কিছু বিষয় খেয়াল রাখলে নানা রকম ঝুঁকি এড়ানো সম্ভব হবে। আসুন দেখে নেই ত্রিশের পরে একজন পুরুষের কিছু স্বাস্থ্য ঝুঁকি এবং তাঁর প্রতিকার। 

১। ফ্লেক্সিবিলিটি কমে যাওয়াঃ 

ত্রিশ বছরের পর একজন পুরুষের শরীরের ফ্লেক্সিবিলিটি কমতে থাকে। তরুণ বয়সের মতো সহজেই কোথাও বেয়ে উঠতে পারবেন না বা দৌড়ঝাপের মতন কোনো কর্মকান্ড করতে পারবেন না। বডি ওয়েইট এর ব্যায়ামগুলো আয়ত্তে আনতেও বেশ কষ্ট করতে হয়।  ব্রাইহাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ফ্লেক্সিবিলিটির গবেষক ব্রেন্ট ফিল্যান্ড বলেছেন, শুধুমাত্র সারাদিন কাজের জন্য ডেস্কে বসে কাজ করার জন্য নয়, এই সময় শরীরের মাংসপেশী এবং কানেক্টিভ টিস্যু সংক্ষিপ্ত হয়ে আসে যা শরীরের ফ্লেক্সিবিলিটি কমিয়ে দেয়। 

প্রতিকারঃ ফ্লেক্সিবিলিটি ধরে রাখার জন্য যোগ ব্যায়াম বেশ কার্যকরী একটি উপায়। যোগ ব্যায়াম আপনার শরীর মন উভয়কেই প্রফুল্ল এবং সতেজ রাখতে সহায়ক। গবেষক ফিল্যান্ডের বলেছেন, যোগ ব্যায়াম সপ্তাহে একদিন শিখে নিয়ে বাকি দিন নিজে নিজে করতে পারবেন। এমনকি স্বাভাবিক কাজ করার মধ্যেও আপনি ফ্লেক্সিবিলিটির ব্যায়াম করতে পারবেন।  

২। হৃদপিণ্ডের কর্মক্ষমতা হ্রাসঃ 

শরীরের অন্যান্য পেশীর মতো হৃদপিণ্ডও একটি পেশী। ৩১-৩২ বছর বয়সে এই হৃদপিণ্ডের কর্মক্ষমতা বেশ তুঙ্গেই থাকে। তবে পরের পাঁচ বছর হৃদপিণ্ডের পেশীর শক্তি কমতে শুরু করে দেয়। এ সময় দেহের রক্ত থেকে অক্সিজেন বের করে নেয়ার ক্ষমতা কমে যেতে থাকে, শরীরে কোলেস্টেরল, ব্লাড প্রেশার বেড়ে যেতে থাকে যার কারনে ফ্যাট হৃদপিণ্ডের গায়ে জমা হতে থাকে এবং হৃদপিণ্ডকে দুর্বল করে দিতে থাকে। 

প্রতিকারঃ হার্টকে সবল রাখতে কার্ডিও ব্যায়াম করতে হবে। ১০ মিনিট ওয়ার্ম আপ করে ৪৫ সেকেন্ড স্প্রিন্ট দৌড় এরপর ৯০ সেকেন্ড জগিং, এভাবে ৮-১০ বার করলে হার্ট সচল এবং শক্তিশালী থাকে। তাছাড়া ফাস্ট ফুড খাওয়া কমাতে হবে এবং সঠিক খাদ্যাভাসের দিকে নজর দিতে হবে। ফল, ফাইবার জাতীয় খাবার, শাকসবজি বেশি খেতে হবে।  

 

৩। ওজন বেড়ে যাওয়াঃ 

বয়স বৃদ্ধির সাথে সাথে আমাদের শরীরে ক্যালরির চাহিদা কমতে থাকে। কিন্তু দেখা যায় খাদ্য গ্রহনের অভ্যাস বয়স বৃদ্ধির সাথেও পরিবর্তন হয় না সহজে। তখন শরীরের চাহিদার তুলনায় ক্যালরি গ্রহণ বেড়ে যায়। ৩০ বছরের পর প্রত্যেক বছর ১২ ক্যালরি করে চাহিদা কমতে থাকে। ৩৪-৫৪ বছর বয়স পর্যন্ত ক্রমান্বয়ে ওজন বাড়তে থাকে। 

প্রতিকারঃ খাদ্যাভাস বদলাতে হবে। প্রথম দিকে আপনার কষ্ট হলেও মানিয়ে নিতে হবে। দিনে অল্প অল্প করে বার বার খেতে পারেন। ফাস্ট ফুড জাতীয় খাবার পরিহার করতে হবে। সবচেয়ে ভালো হয় যদি নিয়মিত ব্যায়াম করতে পারেন। দিনের ৩০-৪০ মিনিট সময় ব্যায়াম করলে বাড়তি ক্যালরি ঝেড়ে ফেলতে পারবেন। 

৪। মাংসপেশীর ক্ষয়ঃ 

ত্রিশ বছর পর থেকে পুরুষের হরমন হ্রাস পেতে থাকে। যার কারনে মাংসপেশীরও ক্ষয় হয়। তাছাড়া যে ইলেক্ট্রিকাল ফোর্স এর মাধ্যমে দেহের অণুগুলো একজোট হয়ে থাকতো তা কমা শুরু করে এবং মাংসপেশীর ক্ষয় হওয়া শুরু করে। যথাযথ ব্যবস্থা না নিলে পরের দশ বছরে ৬ পাউন্ড ওজন কমে যেতে পারে। 

প্রতিকারঃ শরীরের পেশী গঠনকারী ব্যায়াম করতে হবে সাথে ফ্লেক্সিবিলিটির ব্যায়ামও করতে হবে। মাংশপেশীর বিভিন্ন ধরণের ব্যায়ামের প্রতি মনোযোগ দিতে হবে। সে ক্ষেত্রে প্রফেশনাল ট্রেইনার এর সাহায্য নিতে পারেন। সপ্তাহে ব্যায়ামের মাঝে বিশ্রাম রাখবেন এটি মাংসপেশী গঠনে উপযোগী। যোগ ব্যায়ামও মাংশপেশী ক্ষয় রোধে কার্যকরী ভূমিকা পালন করতে পারে। ইঞ্জুরিতে যাতে পড়তে হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে শরীরের টেন্ডন ছোটবেলার মতো মজবুত থাকেনা তাই ফ্লেক্সিবিলিটির ব্যায়াম করতে হবে। খাদ্যতালিকায় আমিষ এবং আঁশজাতীয় খাবার বাড়িয়ে দিতে পারেন। 

৫।  টেস্টসটেরন হরমোন হ্রাসঃ 

ত্রিশ থেকে চল্লিশ বছর পর্যন্ত পুরুষদের টেস্টসটেরন হরমোন ক্রমান্বয়ে প্রতিবছর ১-২% হারে কমতে থাকে। এর ফলে পুরুষের অনেক সময় যৌন আকাঙ্ক্ষা এবং যৌন ক্ষমতা ক্ষেত্র বিশেষে হ্রাস পেয়ে থাকে অনেক সময়। তাছাড়া হাড় এবং মাংসপেশীরও ক্ষয় হতে থাকে। অনেক সময় হৃদরোগের ও মেটাবলিজমের সমস্যা দেখা যায়। 

প্রতিকারঃ নিয়মিত ব্যায়াম করলে এবং ঘুম ঠিকঠাক মতো দিলে টেস্টসটেরন হরমোনের বৃদ্ধি হতে থাকে। খাদ্যাভাসে ডিম, মাছ, মাংস, বাদাম, আঁশ জাতীয় খাবার খেলে এই হরমোন বৃদ্ধি পাবে। তাছাড়া নিয়মতান্ত্রিকভাবে জীবনযাপন করতে হবে। যৌন বিষয়ক সমস্যা প্রকট হলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিবেন। 

ত্রিশ বছর পরের সময়টি একজন পুরুষের শরীরের নানা পরিবর্তন নিয়ে আসে। অনেক সময় বিষয়গুলো এড়িয়ে যাই আমরা যার কারনে ৪০-৫০ বছরে যেয়ে অনেকে নানা রকম রোগে ভুগে। আগে থেকে সতর্ক থাকলে বড় ধরণের ঝুঁকি থেকে বেঁচে যাওয়া সম্ভব। আপনার জীবন ঝামেলামুক্ত রাখতে উপরের নিয়মগুলো মেনে চলুন এবং সুস্থ জীবনযাপন করুন। 

তথ্য সহায়িকাঃ 

১। https://www.menshealth.com/health/a19526355/30s-what-changes-how-to-fix-it/

২। https://www.canyonranch.com/blog/health/a-mans-changing-body/

৩। https://www.webmd.com/men/features/6-top-health-threats-men#1

৪।  https://keepmeprime.com/physical-changes-30-men/ 

 

 

Share On Facebook

please login to review this blog and to leave a comment.


More From Hia

এবারের ডেঙ্গু কেনো অন্যবারের চেয়ে আলাদা?

published on: 22 Jul, 2019

এবারের ডেঙ্গু কেনো আলাদা?: এবারের ডেঙ্গু জ্বরের সাথে আগের মিল নেই। নতুন কোন শক্তিশালী ডেঙ্গু ভাইরাস দিয়ে ছড়ানো এই অসুখ এবার ঢাকায় রীতিমতো মহামারি ...

 6402    2    0 
ডেঙ্গুঃ কারণ, লক্ষণ, প্রতিকার এবং প্রতিরোধ!

published on: 21 Jul, 2019

এই বর্ষায় বৃষ্টির সাথেখিচুড়ি তাে উপভােগ করবেনই, তবে আপনারা যাতে সুস্থতার সাথেতা করতে পারেন তাইগুরুত্বপূর্ণ এক...

 1776    2    0 
ডায়াবেটিস নিয়ে মানুষের যত ভুল ধারণা!

published on: 10 Jul, 2019

বাংলাদেশে ২০৩৫ সালের মধ্যে ডায়াবেটিস রোগীর সংখ্যা দাঁড়াবে ১২৩ মিলিয়নে! নগরায়ন ও শ...

 1774    4    1 

More From Health & Lifestyle

ডায়াবেটিস নিয়ে মানুষের যত ভুল ধারণা!

author: Hasnat Zahan Shapla

বাংলাদেশে ২০৩৫ সালের মধ্যে ডায়াবেটিস রোগীর সংখ্যা দাঁড়াবে ১২৩ মিলিয়নে! নগরায়ন ও শ...

 1774    4    1 
আপনি কী শুচিবায়ু রোগে আক্রান্ত?

author: Hasnat Zahan Shapla

অনেক সময়ই আপনি বাসা থেকে বের হওয়ার পর আবারও গিয়ে চেক  করে আসেন যে আসলেই ব...

 1659    1    0 
কুইজঃ কতটুকু চিনি আপনার জন্যে ক্ষতিকর?

author: Farhin Ahmed Twinkle

আপনি কি খুব বেশি চিনি খাচ্ছেন? আপনার চিনি খাওয়ার অভ্যাসের ধারণা পেতে এই কুইজটির সকল প্রশ্নের উত্তর দিন — এবং আপনার এই অভ্যাস কাটাতে সহায়তা করার জন্য টিপস সম্পর্কে জ...

 1258    1    0